ময়মনসিংহ জেলার দর্শনীয় স্থান সমূহ জেনে নিন

ময়মনসিংহ জেলার দর্শনীয় স্থান

মোমেনশাহী থেকে ময়মনসিংহ হাজারো স্বপ্ন, ভালোবাসা আর বৈচিত্রায়নের পরিপূর্ণতায় সাজানো আমাদের ময়মনসিংহ যা দীর্ঘদিন মোমেনশাহী ও নাসিরাবাদ নামে নামাঙ্কিত ছিল। ১৭৮৭ সালের ১ মে প্রতিষ্ঠিত এই জেলাটি তৎকালীন ভারতীয় উপমহাদেশের বৃহত্তম জেলা ছিল।আর অবস্থানগত কারণে এটি দেশের বিশেষ শ্রেণীভুক্ত জেলা।এর উত্তরে ভারতের মেঘালয়, দক্ষিণে গাজীপুর, পূর্বে নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জ জেলা এবং পশ্চিমে শেরপুর, জামালপুর, টাঙ্গাইল জেলা অবস্থিত। এদিকে ৪,৩৬৩.৪৮ বর্গকিমি এই জেলাটি মোট ১৩ টি উপজেলা নিয়ে গঠিত। মুক্তাগাছা, গফরগাঁও, ঈশ্বরগঞ্জ, গৌরিপুর, তারাকান্দা, ত্রিশাল, ধোবাউড়া, নান্দাইল, ফুলপুর, ফুলবাড়িয়া, ভালুকা, হালুয়াঘাট ও ময়মনসিংহ সদরসহ প্রতিটি উপজেলা ভিন্ন ভিন্ন ইতিহাস ঐতিহ্যে ভরপুর।

ময়মনসিংহ জেলার দর্শনীয় স্থান

  • গারোপাহাড়,
  • চীনামাটির টিলা,
  • মুক্তাগাছার জমিদারবাড়ি,
  • গৌরিপুর জমিদারবাড়ি,
  • আঠারোবাড়ি জমিদারবাড়ি,
  • রাজিবপুর জমিদারবাড়ি,
  • রাজ রাজেশ্বরী ওয়াটার ওয়ার্ক,
  • কালু শাহ কালশার দীঘি,
  • নজরুল স্মৃতি জাদুঘর,
  • ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বার জাদুঘর,
  • কুমির খামার

আরও অসংখ্য নন্দিত দর্শনীয় স্থান এই জায়গাগুলোতে মুক্তোর মতো ছড়িয়ে রয়েছে।তাছাড়া ময়মনসিংহ শহরের বুকেও খুবই দৃষ্টিকাড়া কিছু জায়গা তাদের সোভাদূতি ছড়িয়ে যাচ্ছে।

  • বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়,
  • শশীলজ, ব্রম্মপুত্র নদীর পাড়,
  • ময়মনসিংহ জাদুঘর,
  • জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়,
  • শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন সংগ্রহশালা, সার্কিট হাউজ,
  • বোটানিক্যাল গার্ডেন, বিপিন পার্ক,
  • আলেকজান্ডার ক্যাসেল ও সিলভার ক্যাসেল

ময়মনসিংহ জেলার নদী সমূহ (ময়মনসিংহ জেলার দর্শনীয় স্থান)

সমূহ জুড়ে প্রচুর নদীর সমারোহ লক্ষ্যণীয়। ময়মনসিংহে প্রায় ৪২ টির মতো নদী রয়েছে যার মধ্যে ব্রম্মপুত্র নদী পুরো ময়মনসিংহ জেলাকে জালের মতো আঁকড়ে ধরে আছে। এসব নদী সৌন্দর্য বর্ধনের পাশাপাশি বহু মানুষের জীবিকার উৎস। নদীগুলোর বুক চিড়ে বেড়ে উঠে অনেক মানুষের স্বপ্ন। নদীগুলো হলোঃ

  1. পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদী,
  2. কাঁচামাটিয়া নদী,
  3. মঘা নদী,
  4. সোয়াইন নদী,
  5. বানার নদী,
  6. বাইলান নদী,
  7. দইনা নদী,
  8. পাগারিয়া নদী,
  9. সুতিয়া নদী,
  10. কাওরাইদ নদী,
  11. সুরিয়া নদী,
  12. মগড়া নদী,
  13. বাথাইল নদী,
  14. নরসুন্দা নদী,
  15. নিতাই নদী,
  16. কংস নদী,
  17. খাড়িয়া নদী,
  18. দেয়ার নদী,
  19. ভোগাই নদী,
  20. বান্দসা নদী,
  21. মালিজি নদী,
  22. ধলাই নদী,
  23. কাকুড়িয়া নদী,
  24. দেওর নদী,
  25. বাজান নদী,
  26. নাগেশ্বরী নদী,
  27. আখিলা নদী,
  28. মিয়াবুয়া নদী,
  29. কাতামদারী নদী,
  30. সিরখালি নদী,
  31. খিরু নদী,
  32. বাজুয়া নদী,
  33. লালতি নদী,
  34. চোরখাই নদী,
  35. বাড়েরা নদী,
  36. হিংরাজানি নদী,
  37. আয়মন নদী,
  38. দেওরা নদী,
  39. থাডোকুড়া নদী,
  40. মেদুয়ারি নদী,
  41. জলগভা নদী,
  42. মাহারী নদী

ময়মনসিংহ জেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

আবার স্বপ্নের বাস্তব রুপ দিতে ময়মনসিংহের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাড়ি জমায়। আর এসব স্বপ্নের বাস্তব রুপ দিতে ময়মনসিংহ জুড়ে স্বমহিমায় দাড়িয়ে আছে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

  • বাকৃবি(দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম),
  • ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ,
  • জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়,
  • আনন্দমোহন কলেজ,
  • ময়মনসিংহ গার্লস ক্যাডেট কলেজ,
  • ময়মনসিংহ ইন্জিনিয়ারিং কলেজ,
  • ময়মনসিংহ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট,
  • বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক বিশ্ববিদ্যালয় (প্রস্তাবিত),
  • কমিউনিটি বেজড মেডিকেল কলেজ,
  • শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ,
  • ময়মনসিংহ জিলা স্কুল ও বিদ্যাময়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়

নিঃসন্দেহে এই অঞ্চলসহ পুরো বাংলাদেশের শীর্ষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে অগ্রগণ্য। এসব প্রতিষ্ঠানের খবরসহ ময়মনসিংহের নানাপ্রান্তের খবরাখবর প্রচার প্রচারণার জন্য গণমাধ্যম হিসেবে প্রায় ২৬টি পত্রিকা কাজ করে। ময়মনসিংহ বার্তা তাদের মধ্যে অন্যতম এসব পত্রিকার লেখাগুলো প্রমিত বাংলায় লেখা হলেও ময়মনসিংহ অঞ্চলের কথিত ভাষা হিসেবে তদ্ভব ও বিদেশি শব্দের প্রয়োগ অনেক বেশি।

অন্যদিকে লোক সঙ্গীত, লোক সংস্কৃতি, লোক উৎসব, লোকগাঁথার দিক দিয়ে ময়মনসিংহ হলো তীর্থস্থান।যেমনঃ ‘মৈমনসিংহ-গীতিকা‘ পুরো বিশ্বে পরিচিত একটি নাম যা ইংরেজি ও ফরাসি ভাষায় অনূদিত হয়েছে। তাছাড়া যাত্রাগান, বাউলগান, ভাটিয়ালী, কীর্তন এবং আরও প্রায় সংখ্যাবিশেক গানের উৎপত্তি এই অঞ্চলেই।শুধু গান নয় এমন কিছু খাবারও আছে যা শুধুমাত্র এককভাবে ময়মনসিংহ ঐতিহ্য বহন করে। মুক্তাগাছার মন্ডা, টক জিলাপি, কাঠকচুর বড়া, চেপা শুটকির পুলি তাদের মধ্যে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। এই খাবারগুলো যেমন ময়মনসিংহ কে অনন্য করেছে তেমনি বাংলার সংস্কৃতিকে করেছে প্রসিদ্ধ।

ময়মনসিংহের বিশেষ ব্যক্তিত্ব

ময়মনসিংহে অনেক বিখ্যাত ব্যক্তির জন্মস্থান, যাদের কেউ কেউ ইতিহাস উজ্জ্বল নক্ষত্র হয়ে এই ভূমিকে সূর্যদৃপ্তিতে সবার সামনে ফুটিয়ে ধরেছেন। তাদের মধ্যে কয়েকজন হলেন:

  • কানাহরি দত্ত ( মনসামঙ্গল কাব্যের আদিকবি),
  • শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন, আব্দুল জব্বার( ভাষাশহীদ),
  • আফম আহসান উদ্দিন চৌধুরী( সাবেক রাষ্ট্রপতি),
  • সৈয়দ নজরুল ইসলাম( বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি),
  • শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়( বিখ্যাত ঔপন্যাসিক),
  • মাহফুজ আনাম(সম্পাদক, দা ডেইলি স্টার),
  • শামীম আজাদ( কবিও সাহিত্যিক),
  • তসলিমা নাসরিন( লেখিকা),
  • আরিফিন শুভ( অভিনেতা),
  • মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ( ক্রিকেটার),
  • মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত( ক্রিকেটার),
  • মিতালি মুখার্জি( কণ্ঠশিল্পী) প্রমুখ

এছাড়াও আরও প্রায় অর্ধশতাধিক বিখ্যাত ব্যক্তি রয়েছেন। এসব ব্যক্তির নামে ময়মনসিংহের বিভিন্ন স্থানে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও জাদুঘর নির্মাণ করা হয়েছে। আসছেনতো সেগুলো দেখতে?? ইতিহাস ঐতিহ্যের বীরত্বগাঁথা আমাদের ময়মনসিংহ যাকে অনায়াসে এক জীবনের চেয়ে বেশিই ভালোভাসা যায়!

লিখেছেন

নাঈম আকন্দ

রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

সিরাজগঞ্জ জেলার দর্শনীয় স্থান সমূহ

Aatish Faysal

Hi, I am Aatish,  I have been writing on Jibhai for about 1 year, this is our site, and I am a part of Jibhai. Thanks

Leave a Comment