ফেনী জেলার দর্শনীয় স্থান সমূহ

ফেনী জেলার দর্শনীয় স্থান সমূহ

ফেনী জেলার দর্শনীয় স্থান

ফেনী

ফেনী নদীর তীরে অবস্থিত একটি সৌন্দর্যমন্ডিত ও নয়নাভিরাম জেলার নাম ফেনী।ফেনী বাংলাদেশের একটি বেশ পরিচিত জেলা।ফেনী উপর দিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রামের মড়াসড়কের অবস্থান।এই কারণে ফেনী বাংলাদেশের একটি পরিচিত বানিজ্যক শহর। ফেনী জেলা প্রতিষ্ঠিত হয় ৭ নভেম্বর ১৯৮৩ সালে।এ জেলার আয়তন ৯২৮.৩৪ বর্গকিমি(৩৫৮.৪৩ বর্গমাইল)। ফেনীতে অসংখ্যা নদ-নদী, দিঘী অসংখ্য দর্শনীয় স্থান রয়েছে।

ফেনীর দর্শনীয় স্থান সমূহ

  • ফেনী নদী
  • বিজয় সিংহ দিঘী
  • প্রতাপপুর জমিদার বাড়ি
  • বাঁশপাড়া জমিদার বাড়ি
  • মোহাম্মদ আলী চৌধুরী মসজিদ
  • মহুরী প্রোজেক্ট
  • শিলুয়া মন্দির
  • সাত মঠ ভাষা
  • শহীদ সালাম গ্রন্থাগার ও যাদুঘর
  • ফেণী সরকারি কলেজ
  • সেনেরখীল জমিদার বাড়ী
  • বিলোনিয়া স্থলবন্দর

ফেনী নদীঃ

ফেনী নদী বাংলাদেশের পরিচিত নদী গুলার মাঝে অন্যতম।নদীটি ফেনী,খাগড়াছড়ি,চট্টগ্রাম জেলার উপর দিয়ে বয়ে গিয়েছে।এই নদীর উৎস ত্রিপুরায়।এটি খাগড়াছড়ি জেলার বুকে প্রবাহিত হয়ে ভারতে প্রবেশ করেছে।এই নদীতে সারা বছর নৌকা চলাচলের উপযোগী থাকে।এই নদীর দুপাশের নয়নাভিরাম দৃশ্য সবাইকে মুগ্ধ করে।নৌকা ভ্রমণের জন্য ফেনী নদী দারুন একটি স্পট।

বিজয় সিংহ দিঘী ফেনীঃ

এই দিঘি বাংলার সেন বংশের প্রতিষ্ঠাতা বিজয় সেন খনন করেন।এটির অবস্থান ফেনীর মহিপাল নামক স্থানে।এটি ফেনী শহর থেকে ২ কিলো পশ্চিম দিকে ফেনী সার্কিট হাউজের সামনে অবস্থিত।এটি ফেনীর অন্যতম পর্যটন স্পট।শহর থেকে কাছে হওয়ায় অবসরের দিন গুলোতে মানুষ বেশ ভীর জমায় এই স্থানে।এই দীঘির তীর নানা রকমের উঁচু বৃক্ষ দ্বারা শোভিত।এগুলো দীঘির সৌন্দর্য কে আরো বৃদ্ধি করেছে।

ফেনী জেলার প্রতাপপুর জমিদার বাড়িঃ

প্রতাপপুর জমিদার বাড়ি ফেনীর দাঘনভূঞা উপজেলায় অবস্থিত। ধারণা করা হয় প্রায় ১৮৫০ কিংবা ১৮৬০ সালে এই জমিদার বাড়িটি নির্মান করা হয়ে থাকে। এই জমিদার বাড়ির প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন রাজকৃষ্ণ সাহা কিংবা রামনাথ কৃষ্ণ সাহা।এই বাড়িটিতে ১০টি ভবন ও ১৩টি পুকুর রয়েছে। বাড়িটির সৌন্দর্য শৈলী সবাইকে মুগ্ধ করে।

বিলোনিয়া স্থলবন্দর ফেনীঃ

বিলোনিয়া স্থলবন্দর ফেনীর পশুরাম জেলার অবস্থিত।এটি বাংলাদেশের ১৭ তম স্থলবন্দর।২০০৯ সালের ৪ অক্টোবর এ স্থলবন্দরটি চালু হয়।প্রতিদিন দর্শনাথীদের আনাগোনায় মুখর থাকে এ স্থলবন্দর।

ফেনী দর্শনীয় স্থান দমহুরী প্রোজেক্টঃ

এটি ফেনী জেলার সোনাগাজী উপজেলায় অবস্থিত।এটি দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এই সেচ প্রকল্প।এটির নির্মান কাজ ১৯৭৭-78 অর্থ বছরে শুরু হয়ে ১৯৮৫-৮৬ অর্থবছরে শেষ হয়। এটি ফেনী নদী, মুহুরী নদী এবং কালিদাস পাহালিয়া নদীর সম্মিলিত প্রবাহে আড়ি বাঁধ নির্মাণের মাধ্যমেএকটি বৃহদাকার পানি নিয়ন্ত্রণ কাঠামো তৈরী করা হয়। শীত কালে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে অনেক ভ্রমণ পিপাসু লোক এবং পর্যটক বেড়াতে আসে।

শিলুয়া মন্দিরঃ

শিলুয়া মন্দির ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলায় অবস্থিত।এটি একটি প্রাচীন মন্দির। প্রাচীন শিলামূর্তির ধ্বংসাবশেষ উদ্ধারের কারণে স্থানটি সে সময় থেকেই শিলুয়া মন্দির বা শিল্লা নামে পরিচিত লাভ করে। এই মন্দিরের শিলা পাথর থেকে খৃষ্টপূর্ব দ্বিতীয় অব্দে প্রচলিত ব্রাক্ষ্মী লিপির চিহ্ন পাওয়া যায়।

সাত মঠ ফেনীঃ

সাত মঠ ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলায় অবস্থিত।এটি ছাগলনাইয়ার হিন্দু জমিদার বিনোদ বিহারি আট একর জায়গার উপর নির্মান করেন।এই মঠ টি বাংলাদেশ প্রত্নতাত্ত্বিক অধিদপ্তরের এর তাকিকা ভুক্ত একটি ঐতিহাসিক স্থাপনা।

ফেনী ছবি গ্যালারি

ফেনী নদী
ফেনী নদী, ফেণী
প্রতাপপুর জমিদার বাড়ি
ফেনী জেলার দর্শনীয় স্থান প্রতাপপুর জমিদার বাড়ি
ফেনী জেলার দর্শনীয় স্থান
সাত মঠ, ফেনী

Hi,

I am Hossain Rakib. I have been writing on Jibhai for about 1 year. This is my site and I am a part of Jibhai.

Thanks

এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *