নাসা কি।। কিভাবে সৃষ্টি হল নাসা

কিভাবে সৃষ্টি হলো নাসা?

নাসা কি?

নাসা ১৯৫৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।এই সংস্থাটির সদর দপ্তর মার্কিন যুক্তরাষ্টের ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থিত।বাংলায় নাসা (ন্যাশনাল অ্যারোনটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেরশন)ইংরেজীতে NASA(National Aeronautics and Space Administration) ।এটি হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ গবেষনা সংস্থা।এই পূর্বের নাম ছিল নাকা(ন্যাশনাল অ্যাডভাজরি কমিটি ফর অ্যারোনটিক্স).১৯৫৮ সালে নাকা বিলুপ্ত হয়ে ২৯ জুলাই নাসা প্রতিষ্ঠিত হয়।

নাসি কি

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন(International Space Station-ISS) নামে একটি  কৃত্রিম উপগ্র আছে।

পাঁচটি মহাকাশ গবেষণা সংস্থার সমন্বিত একটি প্রকল্প। ৫ টি সংস্থা

১)মার্কিন মহাকাশ প্রশাসন-নাসা (মার্কিন যুক্তরাষ্ট)

২)রুশ মহাকাশ সংস্থা-রসকসমস (রাশিয়া)

৩)কানাডিয়ান স্পেস এজেন্সি (কানাডা)

৪)জাপানি মহাকাশ অনুসন্ধান সংস্থা (জাপান)

৫)ইউরোপীয় মহাকাশ সংস্থা (ইউরোপীয় ইউনিয়ন);

উল্লেখ্য যে এখানে ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্তরভূক্ত মোট ১১ টা দেশ আছে।নিচে অন্তরভূক্ত দেশগুলোর নাম উল্লেখ করা হলো

  •  যুক্তরাষ্ট্র
  • ডেনমার্ক
  • ইতালি
  • স্পেন
  • জার্মানি
  • নরওয়ে
  • সুইডেন
  • ফ্রান্স
  • বেলজিয়াম
  • নেদারল্যান্ডস
  • সুইজারল্যান্ড

এই সকল সংস্থাগুলোর মধ্যে সব থেকে বেশি আলোচিত সংস্থাটি হলো নাসা

কারণ আমরা যদি প্রতিদিন টিভি দেখি তাহলে আমরা দেখতে পারব প্রায় প্রতিদিনই আমরা সংবাদ মাধ্যমগুলোতে দেখতে পাব নাসার কোন না কোন খবর সেখানে আছে।পরিসংখ্যানও বলে নাসা সব থেকে বড় এবং জনপ্রিয় স্পেস এজেন্সি।

 কিভাবে সৃষ্টি হয়েছিল আজকের এই নাসা?অনেকের মনেই এই প্রশ্ন আছে ।কারণ বর্তমান পৃথীবীতে সব থেকে জনপ্রিয় একটি সংস্থা বল্লেও মনে হয় না বেশি একটা  ভুল বলা হবে না।আসুন এবার জেনে নেওয়া যাক কিভাবে সৃষ্টি হয়েছিল নাসা।

নাসা কি

সালটা তখন ১৯৪৬,নাকা গবেষণা করছে সুপারসনিক বেল এক্স-১ রকেট নিয়ে

ভ্যানগার্ড নামে একটি প্রকল্প চালু করে নাকা।এই প্রজেক্টের মাধ্যমে তারা স্যাটেলাইট উৎক্ষেপনের চেষ্টা করে।এর মধ্যে ১৯৫৭ সালে তৎকালীন সোভিয়েত বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন করে।।US Congress তখন নাকাকে এই বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে বলে।নাকা দ্রুত কার্যক্রম শুরু কৃত্রিম স্যাটেলাইট উৎক্ষেপনের জন্য।তারা ১৯৫৮ সালের ২৯ জুলাই নাকার নাম পরিবর্তন করে নাসা নামকরণ করেন ।আর এভাবেই সৃষ্টি হয় নাসার।

পরবর্তী পর্বে আমরা জানব আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন(International Space Station-ISS) নিয়ে।

Hi, I am Sourav Das, I have been writing on Jibhai for about 1 year, this is my site, and I am a part of Jibhai. Thanks

Leave a Comment