তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নিয়ম

তাহাজ্জুদ নামাজ আদায়ের নিয়ম

তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার নিয়ম

তাহাজ্জুদ পড়ার বিশেষ কোনো নিয়ম নেই। ফরজের পরে তাহাজ্জুদের সালাত আল্লাহ তায়ালার নিকট সবচেয়ে প্রিয়। এটি নিরাপদে জান্নাত লাভের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপায়।

সময় : অর্ধ রাতের পরে। রাতের শেষ তৃতীয়াংশে পড়া উত্তম। তবে ঘুম থেকে না জাগার সম্ভাবনা থাকলে ইশা সালাতের পর দু রাকআত সুন্নতের পর ও বিতরের আগে তা পড়ে নেয়া জায়েজ আছে।

রাকআত সংখ্যা :

সর্ব নিম্ন দু রাকআত। আর সর্বোচ্চ ৮ রাকায়াত পড়া উত্তম। তবে আরও বেশী পড়া জায়েজ আছে। এরপরে বিতর নামায পড়া।

তাহাজ্জুদ পড়ার নিয়ম:

দু রাকআত দু রাকআত করে যথা সম্ভব লম্বা কিরাআত, লম্বা রুকু ও সেজদা সহকারে একান্ত নিবিষ্ট মনে পড়া।

পড়ার স্থান:

ঘরে পড়া উত্তম। তবে মসজিদে পড়াও জায়েজ আছে।

কিরাআত:

উঁচু বা নিচু উভয় আওয়াজে পড়া জায়েজ আছে। তবে কারো কষ্টের কারণ হলে চুপিচুপি পড়া কর্তব্য।

ছুটে গেলে:

তাহাজ্জুদে অভ্যস্ত ব্যক্তি কোন কারণ বশত, রাতে পড়তে না পারলে সূর্য উঠার পর ও যোহরের সময় হওয়ার পূর্বে তা পড়ে নিতে পারে।

জামায়াতে পড়া:

রামাযান ছাড়া অন্য সময় মাঝে-মধ্যে জামায়াতে পড়া জায়েজ আছে। তবে নিয়মিতভাবে নয়। রামাযানে তারাবীহ জামাআতে পড়া সুন্নত।

নিয়মিত পড়া:

নিয়মিত তাহাজ্জুদ পড়া আল্লাহ তায়ালার নিকট অত্যন্ত পছন্দনীয় আমল। আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে তার পছন্দীয় আমল গুলো সম্পাদন করে তাঁর প্রিয় বান্দাদের অন্তর্ভূক্ত করে নিন। আমীন।

আরো পড়ুন

তারাবি নামাজ না পড়লে কি আপনার রোজা হবে ?

রোজার গুরুত্ব ও ফজিলত এবং করণীয়

রোজার নিয়ত

সাইয়েদুল ইস্তেগফার

সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২১ ইসলামিক ফাউন্ডেশন pdf

সেহরি না খেয়ে কি রোজা হয়?

রোজা রেখে কি স্ত্রী সহবাস করা যায় ?

রোজা রেখে ইনজেকশন নেয়া যাবে কি?

Morshed Abdullah

Hi, I am Morshed Abdullah. I like to write about Islam. My favorite quote is “Always ask God for forgiveness because He knows you best.

Leave a Comment