আরণ্যক উপন্যাস রিভিউ বাংলা উপন্যাস

আরণ্যক

বিভূতিভূষণ বন্দ্যাপাধ্যায়

বুক রিভিউ  : আরণ্যক
ক্যাটাগরি: উপন্যাস (অনেকেই এটাকে    ভ্রমণ-উপন্যাস বললেও এটা কেবল উপন্যাস মাত্র)
লেখক:বিভূতিভূষণ বন্দ্যাপাধ্যায় 
পৃষ্ঠা:১৮৫


‘আরণ্যক ‘ (এপ্রিল, ১৯৩৯) উপন্যাসটির  পরিকল্পনার অভিনবত্ব বিস্ময়কর-এটি সাধারণ হতে সম্পূর্ণ নতুন প্রকৃতির ।প্রকৃতির যে সূক্ষ,কবিত্বপূর্ণ অনুভূতি বিভূতিভূষণের উপন্যাসের গৌরব, তা এই উপন্যাসে চরম উৎকর্ষ লাভ করেছে ।’আরণ্যক ‘ উপন্যাসে প্রকৃতি এখানে মূখ্য ।আর মানুষ কে লেখক গৌণ হিসেবে দেখিয়েছেন ।সীমাহীন আরণ্য-প্রকৃতি লেখকের মন ও কল্পনাকে পূর্ণভাবে অধিকার করেছে ।


কাহিনী সংক্ষেপ


উপন্যাসের মূল কাহিনী আবর্তিত হয়েছে  সত্যচরণ নামের কলকাতার একজন সাধারণ যুবকের জীবনের উল্লেখ যোগ্য কয়েকটি বছর কে ঘিরে ।সত্যচরণ স্কুলের মাস্টারি ছেলে তার বন্ধুর বাবার   জমিদারি স্টেটের বিশাল বড় অরণ্যে ভূমির ম্যানেজারির দ্বায়িত নিয়ে সেখানে যায় ।উত্তর বিহারের বিশাল অরণ্যেভূমি মধ্যে তার দ্বায়িত ছিল প্রজা বসানো ।প্রথম দিকে তার কলকাতা শহরের জন্য মন কাঁদলেও একটা সময় পর সে এই অরণ্যে ভূমির, অরণ্য ভূমিতে বসবাসরত কিছু মানুষের জীবন কে ভালোবেসে ফেলে ।এভাবে প্রায় সাত -আট বছর সে সেখানে থাকে এবং বনভূমির বুকে প্রজা বসিয়ে চলে আসে ।দিন শেষে তার আফসোস হয় ।সে এই বনভূমি কে রক্ষা করতে পারেনি ।

উপন্যাসটি যখন লেখা হয় ,তখন সত্যচরণ কলকাতা শহরের বাসীন্দা ।তবে মাঝে মাঝেই তার মনে পরে সেই যুবক বয়সের উত্তর বিহারের বিশাল অরণ্যে ভূমিতে কাটানো সময় গুলি ।আর সেই থেকেই এই আরণ্যক উপন্যাসের জন্ম ।

সমালোচনা


বিভূতিভূষণের ‘আরণ্যক ‘উপন্যাসটিকে অনেকে একটা ভ্রমণ উপন্যাস হিসেবে ধরে বসে ।কিন্তু আসলে তা নয় ।বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায় জীবনে অনেক জায়গায় ঘুরেছেন, দেখেছেন, থেকেছেন ।তাই সেই অভিজ্ঞতার চোখ দিয়ে যা দেখেছিলেন, তাই তার সাহিত্যের মধ্যে ফুটিয়ে তুলেছেন  ।

আমার কাছে অসাধারণ লেগেছে উপন্যাস টি।অনেক কিছু শেখার আছে উপন্যাস টি থেকে বলে আমি মনে করি।
তাই নিজের সাহিত্য সম্পর্কে জানতে ,কোয়ারেন্টাইন কাজে লাগাতে অবশ্যই পড়তে পারেন উপন্যাস টি ।
উপন্যাসটি নিকটস্থ ব‌ইয়ের মার্কেট অথবা আমাদের দেশের বিখ্যাত অনলাইন বুকশপ “রকমারিডটকম” থেকে সংগ্রহ করতে পারেন ।
সাধারণত দাম পড়বে :১২০-১৫০ টাকা”রকমারি ডট কম” থেকে দাম পড়বে:১৩০-১৭০ টাকা [চার্জ প্রযোজ্য]


রিভিউ লেখক :
সামিউল হক নিঝুম

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় 

Leave a Comment